যশোরে প্রতিটি ইউনিয়নে কেন্দ্র খুলে সরাসরি ধান ক্রয়ের দাবি

ব্যুরো রিপোর্ট: সরাসরি কৃষকদের কাছ থেকে ধান ক্রয়ের দাবিতে যশোরে জেলা প্রশাসক বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছে দুটি সংগঠন। রোববার দুপুরে বাংলাদেশ কৃষক ক্ষেতমজুর সমিতি ও যশোর জেলা ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে স্মারকলিপি দেওয়া হয়।
ক্ষেত মজুর সমিতির স্মারকলিপিতে বলা হয়েছে, প্রতিটি ইউনিয়নে কেন্দ্র খুলে কৃষকদের কাছ থেকে সরাসরি ধান ক্রয় করতে হবে। কৃষকের উৎপাদিত পণ্যের অন্তত ১৫ শতাংশ সরকারিভাবে কিনতে হবে। সরকারের নীতির কারণে মধ্যস্বত্বভোগীদের দৌরাত্ম বেড়েছে। এসব ব্যবসায়ীরা ৪৫০ টাকা থেকে ৭শ’ টাকা দরে ধান কিনতে সিন্ডিকেট গড়ে তুলেছে। যার ফলে কৃষককে বিঘা প্রতি অন্তত চার হাজার টাকা লোকসান গুনতে হচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে প্রতিটি ইউনিয়নে সরকার নির্ধারিত এক হাজার ৪০ টাকা মণ দওে সরাসরি কৃষকের কাছ থেকে কিনতে হবে। একই সঙ্গে সিন্ডিকেট ব্যবসায়ীদের দৌরাত্ম বন্ধ, কৃষকের নামে দায়েরকৃত সার্টিফিকেট মামলা প্রত্যাহার পূর্বক ঋণ মওকুফ করতে হবে।
স্মারকলিপি প্রদানকালে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশের ইউনাইডেট কমিউনিস্ট লীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মোশাররফ হোসেন নান্নু, বাংলাদেশ কৃষক ক্ষেত মজুর সমিতির সভাপতি রঞ্জিত চট্টোপাধ্যায়, সহ-সভাপতি অধ্যাপক আফসার আলী, সাংগঠনিক সম্পাদক ও যশোর জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক তসলিম-উর-রহমান, সহ-সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান প্রমুখ। এর আগে সংগঠনের নেতার শহরে মিছিল বের করেন।
অপরদিকে, যশোর জেলা ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে জেলা প্রশাসক আবদুল আওয়ালের কাছে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। স্মারকলিপিতে সরকার নির্ধারিত দামে কৃষকদের কাছ থেকে সরাসরি ধান ক্রয় ও অঞ্চল ভিত্তিক ধান ক্রয়ের পরিমাণ বৃদ্ধিও দাবি জানানো হয়েছে।
ছাত্রলীগের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন পৌর শাখার সভাপতি মেহেদী হাসান রনি, সরকারি সিটি কলেজ শাখার সভাপতি খন্দকার মারুফ হুসাইন ইকবাল, সদর উপজেলা শাখার যুগ্ম আহŸায়ক মুমেল হোসেন, সরকারি এমএম কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক তৌহিদুর রহমান প্রমুখ।