এমপি রণজিত রায়ের সংবাদ বয়কট বাঘারপাড়ার সাংবাদিকদের

ব্যুরো রিপোর্ট: যশোরের বাঘারপাড়া উপজেলায় স্থানীয় সংসদ সদস্য রণজিত কুমার রায় ও যুবলীগের ইতিবাচক সকল কর্মসূচির সংবাদ বয়কটের সিদ্ধান্ত নিয়েছে স্থানীয় সাংবাদিকরা। তিন মাস পার হলেও যুবলীগ নেতা কর্তৃক বাঘারপাড়া প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক চন্দন দাসের উপর হামলার বিষয়ে কোন ব্যবস্থা না নেওয়া প্রতিবাদ হিসেবে শুক্রবার সকালে বাঘারপাড়া প্রেসক্লাবের নির্বাহী কমিটির সভায় এ সিন্ধান্ত নেওয়া হয়েছে
বাঘারপাড়া প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকবাল কবীর জানান, গত ২৫ মার্চ বাঘারপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক চন্দন দাসের উপর হামলা চালায় উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক কামরুজ্জামান লিটন। বিষয়টির সুরহার জন্য এমপি রণজিৎ কুমার রায়কে অনুরোধ জানানো হয়। আরও অনেকেই বলেছেন বিষয়টি নিয়ে তিনি (এমপি) কালক্ষেপন করেন বলে স্থানীয় সাংবাদিকদের কাছে প্রতীয়মান হয়েছে। সর্বশেষ গত ২৩ জুন বাঘারপাড়া উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক রাজিব রায় সাংবাদিক চন্দন দাসকে মুঠোফোনে আশ^স্ত করেন তিনি বিষয়টি দ্রæত নিস্পত্তি করবেন। রাজিব রায়ও পরে আর যোগায্ােগ করেননি। এর আগে যুবলীগের সাবেক সভাপতি বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুর রউফ, ধলগ্রাম ইউপি চেয়ারম্যান আওয়ামীলীগ নেতা সুবাস দেবনাথ অভিরামসহ কয়েকজন আওয়ামীলীগ নেতাকে অনুরোধ জানানো হয়। তাদের কেউই কোন উদ্যেগ নেননি। দীর্ঘ সময় পার হলেও স্থানীয় আওয়ামীলীগ ও যুবলীগের নেতৃবৃন্দ এ বিষয়ে কোন ব্যবস্থা না নেওয়ায় শুক্রবার সকালে বাঘারপাড়া প্রেসক্লাবের নির্বাহী কমিটির সভায় সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, যতদিন বিষয়টির সম্মানজনক মীমাংসা না হবে ততদিন স্থানীয় সংসদ সদস্য রণজিৎ কুমার রায় ও যুবলীগের সমস্ত প্রকার ইতিবাচক সংবাদ প্রকাশ করা হবে না।
বাঘারপাড়া প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকবাল কবিরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত ছিলেন প্রেক্লাবের সহ সভাপতি কেএম শরাফত উদ্দীন, সাধারণ সম্পাদক চন্দন দাস, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আজিজুল ইসলাম, দপ্তর সম্পাদক হুমায়ুন কবির, কোষাধ্যক্ষ তরুণ মন্ডল, নির্বাহী সদস্য আব্দুর রব, সাইদ ইবনে হানিফ, মঞ্জুর মুর্শিদ।