১৯তম হত্যাবার্ষিকী: শহীদ সাংবাদিকের ভাইয়ের আবেগঘন স্ট্যাটাস

ব্যুরো রিপোর্ট: যশোরের শহীদ সাংবাদিক শামছুর রহমান কেবল হত্যাকাণ্ডের বিচার সম্পন্ন ১৯ বছরেও সম্পন্ন হলো না। বরং গত ১৪ বছর ধরে আইনের মারপ্যাঁচে আটকে রয়েছে এই মামলার বিচার প্রক্রিয়া।  ২০০০ সালের ১৬ জুলাই রাতে জনকন্ঠ যশোর অফিসে কর্মরত অবস্থায় আততায়ীর গুলিতে নিহত হন। তার ১৯ম মৃত্যুবার্ষিকীতে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছেন ছোট ভাই সাজেদ রহমান।

তার স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলো- ১৯ বছর ধরে জোসনা দেখছি। আমার ভাই সাংবাদিক শামছুর রহমান কেবল। জোসনা ভালবাসতেন। জোসনা রাতে গান গাইতেন। বসন্ত কাল যেমন তাঁর পছন্দ ছিল। তেমনি ভালবাসতেন শ্রাবণ। ১ লা শ্রাবনেই চলে গেলেন। ১৯ বছর ধরে অসংখ্য জোসনা এসেছে। এসেছে শ্রাবণ। কিন্তু ভাই নেই। তাঁর জোসনা দেখার অনুভূতি অনুপস্থিত।
শৈশবের কি কোন রং আছে? আমার কাছে কেন যেন মনে হয় কাঁচা হলুদের রং, একটা প্রজাপতি, কিছু ঘাসফুল। সব কিছু ছিল, কারণ তিনি ছিলেন আমাদের অভিভাবক। ছোট বেলায় বাবাকে হারানোর কষ্ট বুঝতে পারেনি তাঁর জন্য।
বেঁচে থাকলে তাঁর বয়স হতো ৬২ বছর, প্রবীন। চেহারা কেমন হতো, তা বোঝার চেস্টা করি। অথচ মাত্র ৪৩ বছরে মারা গেলেন তিনি। ১৯ বছর ধরে হত্যার বিচার চাইছি। কোন প্রতিকার পাইনি। এর কোন উত্তর নেই। ১৯ বছর ধরে একটি হত্যাকান্ডের বিচার হয়না, এটা মনে বাংলাদেশেই সম্ভব। পৃথিবীর আর কোন দেশে এটা হয় না। অথচ বিচার পাওয়ার অধিকার আমাদের আছে। রাষ্ট্র তা করেনি। আর কত কাল বিচারের জন্য অপেক্ষা। এ প্রশ্নের জবাব নেই। হয়তো অনন্তকাল…..

উল্লেখ্য

তথ্যসূত্র: শহীদ সাংবাদিক শামছুর রহমান কেবলের ভাই সাজেদ রহমান বকুলের ফেসবুক টাইমলাইন থেকে নেওয়া।