যশোরে বাড়িতে ঢুকে নববধূকে ছুরি মারলো প্রেমিক

ব্যুরো রিপোর্ট: যশোরে প্রেমিককে ফাঁকি দিয়ে অন্যকে বিয়ে করায় রাজিয়া আক্তার সাথী নামে এক নববধূকে ছুরিকাঘাতে জখম করা হয়েছে। ঠেকাতে গিয়ে জখম হয়েছেন সাথীর দাদা-দাদীও। সোমবার দুপুরে যশোর সদর উপজেলার কাজীপুর গ্রামের মুন্সিপাড়া গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় সাথীকে ঢাকা মেডিকেলে রেফার্ড করা হয়েছে। এই ঘটনায় অভিযুক্ত রিয়াজুল ইসলামকে আটক করেছে পুলিশ। তিনি একই গ্রামের পশ্চিমপাড়ার খোকনের ছেলে ও যশোর সরকারী টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজের ছাত্র। আহত সাথীর দাদা মনিরুল ইসলাম কোতোয়ালি মডেল থানায় অভিযোগ দিয়েছেন।
পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ১আগস্ট শহরের নাজির শংকরপুর হাজারী গেট এলাকার আসাদুজ্জামান রনির সঙ্গে রাজিয়া আক্তার সাথীর বিয়ে হয়। রোববার স্বামী রনি, সাথী এবং রনির ভগ্নিপতি সোহান বেড়াতে যান সাথীর পিতার বাড়িতে। সোমবার দুপুরে বাড়ির পাশেই সাথীর ফুফু মমতাজের বাড়িতে খাওয়ার জন্য দাওয়াত ছিল। দুপুরে দিকে রিয়াজ তাদের বাড়িতে যায়। রিয়াজকে দেখে সাথী ঘরের মধ্যে চলে যায়। কিন্তু রিয়াজও তার পিছনে ঘরের মধ্যে যায়। রিয়াজ ঘরের দরজা বন্ধ করতে গেলে বাধা দেন সাথীর দাদা মনিরুল ইসলাম। এরই মধ্যে রিয়াজ ঘরের মধ্যে গিয়ে সাথীকে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করে। ঠেকাতে গিয়ে সাথীর দাদা ও দাদী আহত হন। এসময় তাদের চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে রিয়াজ পালানোর চেষ্টা করে। কিন্তু স্থানীয়রা ধরে তাকে থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছে। পরে সাথী, তার দাদা ও দাদীকে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
আটক রিয়াজুলের দাবি, সাথীর সাথে তার চার বছরের প্রেম। তাকে ফাঁকি দিয়ে সাথী অন্যকে বিয়ে করেছে।
কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান, অভিযুক্তকে আটক করা হয়েছে। মামলা রুজু প্রক্রিয়াধীন।