আ’লীগের ধর্মবিষয়ক উপ-কমিটি: এসএম ইয়াকুব আলীর পদ নিয়ে বিভ্রান্তি

ব্যুরো রিপোর্ট : বিভিন্ন গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়েপড়া আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় ধর্মবিষয়ক উপ-কমিটির ৩৫ সদস্যের তালিকায় নেই যশোরের এসএম ইয়াকুব আলী। যদিও তিনি ২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারি মাস থেকে উপ-কমিটির সদস্য দাবি করছেন। ভাইরাল তালিকায় নাম না থাকায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চলছে সমালোচনার ঝড়। বুধবার দুপুরে মোবাইল ফোনে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের উপ-কমিটির চেয়ারম্যান খন্দকার গোলাম মাওলা নকশেবন্দি বলেন, ৩৫ সদস্যের ওই তালিকাটি ভুয়া। কমিটির তালিকা নেত্রী, দলের সেক্রেটারি ও আমি ছাড়া কেউ জানে না। কমিটিতে মুসলিম, হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান, সব ধর্মের লোক আছে। কমিটি অনুমোদন হয়েছে। কিন্তু কমিটির তালিকা প্রকাশে নেত্রীর নিষেধ আছে। আগামী কাউন্সিলে কমিটির তালিকা উপস্থাপন করা হবে। তিনি আরও বলেন, যশোরের মনিরামপুরের এসএম ইয়াকুব আলী উপ-কমিটির সদস্য। আগে থেকেই সদস্য হিসেবে আছে।
জানা গেছে, ২০১৮ সালের ১ ফেব্রুয়ারি আওয়ামী লীগের উপ-কমিটির চেয়ারম্যান খন্দকার গোলাম মাওলা নকশেবন্দি স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে এসএম ইয়াকুব আলীর সদস্য পদপ্রাপ্তির বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়। এই চিঠি পাওয়ার পর রাজনৈতিক, সামাজিক অঙ্গনে কেন্দ্রীয় নেতা হিসেবে তিনি তৎপর হন।
ওই পদ ব্যবহার করে তিনি একাদশ সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চেয়েছিলেন। কিন্তু মনোনয়ন পাননি। সম্প্রতি বিভিন্ন গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির ৩৫ সদস্যের তালিকায় নাম নেই এসএম ইয়াকুব আলীর। কমিটির ওই তালিকায় নাম না থাকায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনার ঝড় বইছে। সৃষ্টি হয়েছে নানা বিভ্রান্তিও।
এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে এসএম ইয়াকুব আলী বলেন, কোথায় কোন্ তালিকা প্রকাশ হয়েছে জানি না। তবে আমি আওয়ামী লীগের ধর্মবিষয়ক কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির সদস্য হয়েছি, সেই সংক্রান্ত চিঠি আছে। সেই চিঠির আলোকে গত সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন চেয়েছিলাম। এ ছাড়াও দলের বিভিন্ন ফোরামে সদস্য পদপ্রাপ্তির বিষয়টি অবহিত করেছি। -তথ্যসূত্র:  যুগান্তর অনলাইন