শাহীন চাকলাদার দিলেন দশ হাজার প্যাকেট খাদ্য সহায়তা

ব্যুরো রিপোর্টার: পৃথিবীব্যাপী ছড়িয়ে পড়েছে করোনা ভাইরাস। সংক্রমণ ঠেকাতে সরকারি নির্দেশে গৃহবন্দি হয়েছে যশোরের নিম্ন আয়ের মানুষও। আর এতেই অসংখ্য খেটে খাওয়া মানুষ কষ্টে দিনরাত পার করছেন। এমন পরিস্থিতিতে দরিদ্র মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন যশোর-৬ কেশবপুর সংসদীয় আসনের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার। যশোর জেলা প্রশাসনের কাছে ১০ হাজার প্যাকেট খাদ্য সহায়তা দিয়েছেন তিনি।
(৩ এপ্রিল) শুক্রবার বিকালে যশোর শহরের কাঁঠালতলাস্থ শাহীন চাকলাদারের ব্যক্তিগত কার্যালয় থেকে জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা মুহাম্মদ ছানোয়ার হোসেনের কাছে এসব খাদ্য সহায়তা তুলে দেয়া হয়।
জানা গেছে, যশোর জেলার আট উপজেলায় গরীব অসহায় কর্মহীনদের মাঝে শাহীন চাকলাদার প্রদত্ত এসব খাদ্য সহায়তা বিতারণ করা হবে। যার মধ্যে যশোর জেলার কেশবপুর পৌরসভায় ৪শ’ প্যাকেট, মণিরামপুর পৌরসভায় দেড়শ’ প্যাকেট, নওয়াপাড়ায় দেড়শ’ প্যাকেট এবং যশোর জেলার ৯৩ টি ইউনিয়নের মানুষের মাঝে অবশিষ্ট খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হবে। প্রতি প্যাকেটে ১০ কেজি চাল, এক কেজি ডাল, এক কেজি আলু, আধা লিটার সয়াবিন তেল, আধা কেজি পেঁয়াজ রয়েছে।
খাদ্য সহায়তা প্রদানকালে জেলা জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা মুহাম্মদ ছানোয়ার হোসেন, সদর উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা ফিরোজ আহমেদ, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও ইউপি চেয়ারম্যান এস এম আফজাল হোসেন, শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম মাহমুদ হাসান বিপু, চুড়ামনকাটি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান প্রমুখ ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।
এর আগে করোনার প্রাদুভার্ব দেখা দিলে নিজ উদ্যোগে জেলার সদর উপজেলা ও কেশবপুর উপজেলায় জীবাণুনাশক ওষুধ স্প্রে করে দেন তিনি। সেই সাথে সাধারণ মানুষের মাঝে মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও হ্যান্ডগ্লাবস বিতরণ করেন।
জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা মুহাম্মদ ছানোয়ার হোসেন বলেন, স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের দেওয়া তালিকার প্রেক্ষিতে এই খাদ্য সহায়তা বিতরণ করা হবে।
তিনি আরো বলেন, অনেক অসহায় গরীব করোনা পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্য বিধি মানতে গিয়ে ঘর থেকে বের হতে পারছে না। তাদের ঘরে পর্যাপ্ত খাবার নেই। সরকারিভাবে বিভিন্ন ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। রাজনৈতিকভাবে শাহীন চাকলাদার করোনা পরিস্থিতিতে অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়িয়েছেন। এটি মহতি উদ্যোগ। সমাজের বিত্তবানের এসব অসহায় মানুষের পাশে এসে দাঁড়ানোর আহ্বান জানান তিনি।