গোপনীয়তা রেখে নিম্নমধ্যবিত্ত ও মধ্যবিত্তদের পাশে পারটেক্স গ্রুপ

নিজস্ব প্রতিবেদক

নভেল করোনা ভাইরাসের ছোবলে থমকে গেছে গোটা বিশ্ব। প্রভাব ঠেকাতে বিশ্বের অনেক দেশ লকডাউন করা হয়েছে। গত মাসের শেষ সপ্তাহ থেকে বাংলাদেশে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হলেও তৈরি হয়েছে অঘোষিত লকডাউন পরিস্থিতি। একটানা ২৩ দিনের এই পরিস্থিতি সব শ্রেণির পেশাজীবীরা পড়েছেন বিপাকে। হত দরিদ্রদের পাশাপাশি সীমাহীন দুর্ভোগে পড়েছেন নি¤œবিত্ত ও মধ্যবিত্তরাও। এমন পরিস্থিতিতে কর্মহীন, অসহায় ও দুস্থ মানুষদের পাশাপাশি গোপনে নি¤œবিত্ত ও মধ্যবিত্ত কয়েক হাজার পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছে দেশের স্বনামধন্য ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান পারটেক্স গ্রুপ। গ্রুপের হেড অব পাবলিক রিলেসন্স (পিআরও) রাশেদ চৌধুরীর তত্ত্বাবধানে গোপন তথ্যের ভিত্তিতে তালিকা প্রস্তুত করে গ্রæপের চেয়ারম্যান এম এ হাসেম ও তার পরিবারের পক্ষের এই সহায়তা প্রদান করা হচ্ছে। খাদ্য সহায়তা পৌঁছে দেওয়া হয়েছে সাংবাদকর্মীদের ঘরে। লৌহজংয়ে আদিবাসীদের মধ্যেও বিতরণ করা হয়েছে খাদ্যসামগ্রী।
হেড অব পাবলিক রিলেসন্স রাশেদ চৌধুরীর বলেন, ‘চলমান সংকট মোকাবেলায় শুরু থেকেই মানুষের পাশে আছে পারটেক্স গ্রুপ। গ্রুপের পক্ষ থেকে প্রথমে হতদরিদ্র ও অসহায়দের মধ্যে খাদ্য বিতরণ করা হলেও মধ্যবিত্ত ও নিম্নমধ্যবিত্তদের নানা তথ্য আমাদের কাছে আসতে থাকে। পরে বিশেষ টিম গঠনের মাধ্যমে আমরা গোপন তথ্যের ভিত্তিতে তালিকা প্রস্তুত করি। কারণ এই দুই শ্রেণির মানুষের বুক ফাটে তো মুখ ফোটে না পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে যেতে হয়। সে দিক বিবেচনায় খুব গোপনে আমরা তাদের মধ্যে খাদ্য সহায়তা দিয়ে যাচ্ছি।’ সংকট চলাকালীন গ্রুপের পক্ষ থেকে এই সহায়তা অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি।
জানা যায়, পারটেক্স গ্রুপের পক্ষ থেকে এ পর্যন্ত ১২ হাজার পরিবারের মধ্যে খাদ্য সহায়তা পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। অঘোষিত লক ডাউনে শুরুতে হত দরিদ্র ও দুস্থদের মধ্যে খাদ্য সহায়তা প্রদান শুরু হলেও গত কয়েকদিন ধরে নি¤œমধ্যবিত্ত ও মধ্যবিত্তদের মধ্যে এই সহায়তা দেওয়া হচ্ছে। গতকাল বৃহস্পতিবার (১৬ এপ্রিল) দুপুরে টিভি ক্যামেরা জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের (টিসিএ) সদস্যদের জন্য খাদ্যসামগ্রী হস্তান্তর করেছেন গ্রুপটির হেড অব পাবলিক রিলেসন্স রাশেদ চৌধুরী। এসময় টিসিএ সভাপতি শেখ মাহবুব আলম, সহ-সভাপতি মোস্তাক জাহিদ, প্রচার সম্পাদক মো. আকছানুর রশিদ খান, সহ-প্রচার সম্পাদক রিয়ান মিঠুনসহ টিসিএর সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।
অন্যদিকে গত বুধবার মধ্যবিত্ত অসহায় মানুষের মাঝে প্রদানের জন্য বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের (বিইউপি) ভিসি মেজর জেনারেল আতাউল হাকিম সরোয়ার হাসান কাছে ১ হাজার পরিবারের খাদ্য সামগ্রী তুলে দেয়া হয়। পারটেক্স গ্রুপের চেয়ারম্যান হাসেম সাহেবের পক্ষ থেকে খাদ্যসহায়তা সামগ্রী হস্তান্তর করেন পারটেক্স গ্রুপের পিআরও রাসেদ চৌধুরী ও সমাজ সেবক শেখ মাহমুদ হাসান।
এদিকে মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ে সাড়ে ৫শ’ এবং সদর উপজেলার মিরকাদিমে সাড়ে ৪শ’ বেদে পরিবারের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। পারটেক্স গ্রæপের সহায়তায় উত্তরণ ফাউন্ডেশন এই খাদ্যসামগ্রী প্রদান করা হয়। পুলিশের ঢাকা রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি (অর্থ ও প্রশাসন) মো. আসাদুজ্জামান বিপিএম প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে গত বুধবার দুপুরে উপজেলার হলদিয়া সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে বেদেদের মধ্যে সহায়তা হস্তান্তর করা হয়। প্রত্যেকটি পরিবারকে ৫ কেজি চাল, ১ কেজি ডাল, ১ কেজি তেল, ১ কেজি পেঁয়াজ বিতরণ করা হয়।
পরে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে জেলা পুলিশ সুপার আব্দুল মোমেন বিপিএম-এর সভাপতিত্বে ও লৌহজং থানার ওসি আলমগীর হোসাইনের সঞ্চালনায় সচেতনতামূলক আলোচনা অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন পুলিশের ঢাকা রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি (ক্রাইম) জিহাদ উল কবির। অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ জেলার পুলিশ সুপার ও বাংলাদেশ পুলিশ সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক জায়েদুল আলম পিপিএম, সিরাজদিখান সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রাজিবুল ইসলাম, শ্রীনগর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. আসাদুজ্জামান, অভিনেত্রী মোমেনা চৌধুরী প্রমুখ।