বেনাপোল সীমান্তে অস্ত্রগুলি উদ্ধার, আটক ৩

ব্যুরো রিপোর্ট: যশোরের বেনাপোল সীমান্তে অস্ত্র, গুলি, গোলাবারুদ ও গাঁজাসহ তিনজনকে আটক করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। শনিবার ভোরে বেনাপোল সীমান্তের ঘিবা নামক স্থান থেকে তাদের আটক করা হয়। তল্লাশি করে ১১টি পিস্তল, ২২টি ম্যাগজিন, ৫০রাউন্ড গুলি ও ১৪ কেজি গাঁজা উদ্ধার করা হয়। আটককৃতরা হলেন-শার্শা উপজেলার সর্বাঙ্গহুদা গ্রামের এজুবার মিয়ার ছেলে মো. সাজজুল (৩০), একই গ্রামের সাবেদ আলীর ছেলে আলমগীর হোসেন (৪০) ও শহিদ বিশ^াসের ছেলে আনারুল ইসলাম (৩৫)।
৪৯ বিজিবি-যশোরের অধিনায়ক লে. কর্নেল মো. সেলিম রেজা জানান, শুক্রবার দিবাগত রাতে রঘুনাথপুর বিওপিতে কর্মরত হাবিলদার সিগন্যাল মিজানুর রহমানের নেতৃত্বে একটি বিশেষ অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযান চলাকালে আনুমানিক রাত সাড়ে ৩টার দিকে টহল দল দেখতে পায় মেইন পিলার ২১/৬ এস থেকে আনুমানিক ৮শ’ গজ বাংলাদেশের অভ্যন্তরে ঘিবা নামক স্থান দিয়ে তিনজন অজ্ঞাত ব্যক্তি বস্তা মাথায় নিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করছে। টহল দল তাদের চ্যালেঞ্জ করলে দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করে। এসময় টহল দল বস্তাসহ তিনজনকে আটক করতে সক্ষম হয়। বস্তা তল্লাশি করে ১১টি পিস্তল, ২২টি ম্যাগাজিন, ৫০রাউন্ড গুলি ও ১৪কেজি গাঁজা আটক করা হয়। আটক আসামিদের জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, অস্ত্র, গোলাবারুদ ও গাঁজা ভারতের উত্তর চব্বিশ পরগনা জেলার বনগাঁ থানার ভিড়া গ্রামের লাল্টু মিয়ার ছেলে কোরবান আলী (৩৫) ও একই গ্রামের লাল্টু মিয়ার কাছ থেকে বাংলাদেশের যশোর জেলার বেনাপোল পোর্ট থানার নারায়নপুর গ্রামের মৃত কেরামত মল্লিকের ছেলে বাদশা মল্লিক কিনেছে। তার কাছে হস্তান্তর করার জন্য ওই তিনজন নিয়ে যাচ্ছিলেন।
তিনি আরও জানান, উদ্ধারকৃত অস্ত্র, গোলাবারূদসহ মাদকদ্রব্যের সিজার মূল্য ১২ লাখ ১৮ হাজার টাকা। আসামিদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ প্রক্রিয়াধীন। #