ড. রওশন আলী কলেজের প্রতিষ্ঠাতার মতবিনিময়

ব্যুরো রিপোর্টার:  ড. রওশন আলী কলেজ অব সায়েন্স, টেকনোলজি অ্যান্ড ম্যানেজমেন্ট প্রতিষ্ঠাতা অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রওশন আলী এলাকাবাসীর সাথে মতবিনিময় সভা করেছেন। বুধবার বিকালে কলেজ প্রাঙ্গণে মতবিনিময় করেন।
অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রওশন আলী বলেন, ১৯৯৯ সালে জন্মস্থান কালীগঞ্জের মাজদিয়া মৌজায় একটি কলেজ করার জন্য গ্রামবাসী দাবি জানায়। এরপর প্রস্তুতি গ্রহণ করি। ২০০১ সালে তৎকালীন শিক্ষামন্ত্রী এএসএইচকে সাদেক সাহেবের সহযোগিতায় ঝিনাইদহ জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার মাজদিয়া মৌজাতে কলেজটি স্থাপন করি। প্রতিষ্ঠার সময় কলেজ ফান্ডে ১৫ লাখ টাকা দান করি। পরবর্তীতে নিজে ও কলেজ ফান্ডের ওই টাকা দিয়ে সাড়ে ৯ বিঘা জমি ক্রয় করি। এছাড়া কলেজের বিল্ডিংও করি। পরবর্তীতে এমপিওভুক্ত হয়েছে। এভাবে কলেজটি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। সম্প্রতি কলেজের সভাপতি মেহেদী হাসান মিন্টু কোন কিছু না জেনেই ঈর্ষাণিত হয়ে আমার নামে অর্থ আত্মসাতের মামলা দায়ের করেছে। আমার দানের টাকায় কলেজের জমি ও ভবন হয়েছে। আর আমার বিরুদ্ধেই অর্থ আত্মসাতের মামলা দেয়া হয়েছে। এলাকাবাসী সব সত্য জানে। আমাকে হেয় করার জন্যই মিথ্যা মামলা দেয়া হয়েছে।
মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন কলেজের অধ্যক্ষ শাহজালাল পারভেজ, মাজাদিয়া মাদরাসার সুপার খোরশেদ আলম, বারবাজার ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মুজিবুর রহমান, আওয়ামী লীগ নেতা মোসলেম মোল্যা, আলম তরফদার, মুক্তিযোদ্ধা অমেদ আলী, বাবু তরফদার, জামির মোল্যা, মুনছুর রহমান, ওলিয়ার রহমান, নূর আলম, আলতাফ মোল্যা, আব্দুল আজিজ, ওলায়েদ হোসেন, সামাদ বিশ^াস, নজরুল ইসলাম বিশ^াস, আলমগীর হোসেন, বাপ্পা বিশ^াস প্রমুখ। ড. রওশন আলীর বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের মিথ্যা মামলা করায় এলাকাবাসী ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। কলেজের প্রতিষ্ঠাতাকে অপমান করায় নিন্দা জানান এলাকাবাসী।