যশোরে পর্নোগ্রাফি আইনে স্বামীর বিরুদ্ধে স্ত্রী মামলা

ব্যুরো রিপোর্টার: গোপন ভিডিও ভাইরাল করার হুমকি দিয়ে চাঁদা দাবির অভিযোগে যশোর আদালতে পর্নোগ্রাফি আইনে স্বামীর বিরুদ্ধে স্ত্রী মামলা হয়েছে। বুধবার ভুক্তভোগী নারী জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এই মামলা করেছেন। বিচারক সাইফুদ্দীন হোসাইন অভিযোগটি গ্রহণ করে পিবিআইকে তদন্ত করে প্রতিবেদন জমা দেয়ার আদেশ দিয়েছেন। আসামি জিৎ হোসেন ওরফে বিশ্বজিৎ দেওয়ান খুলনা ডুমুরিয়ার রঘুনাথপুর গ্রামের দেওয়ানপাড়ার নলিনী দেওয়ানের ছেলে।
জানা যায়, আসামি পেশায় গ্রাম্য ডাক্তার। বাদী পাইলস রোগে আক্রান্ত হলে বিশ্বজিতের কাছে যায়। এক পর্যায়ে তাদের দুইজনের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। বাদী মুসলিম ও আসামি হিন্দু হওয়ায় বিয়ে করতে বাদী রাজি হয়না। এরপর বিশ্বজিত মুসলমান হয়ে জিৎ হোসেন নাম রেখে ২০১৯ সালের ২০ অক্টোবর ইসলাম শরীয়ত মোতাবেক তারা বিয়ে করে। এরপর তারা স্বামী স্ত্রী হিসেবে বসবাস করতে থাকে। এরমাঝে গোপনে বিশ্বজিৎ স্বামী স্ত্রীর অন্তরঙ্গ কিছু ছবি ও ভিডিও ধারণ করে রাখে। চলতি বছরের ২৫ ফেব্রæয়ারী বিশ্বজিত বাদীকে অকথ্য ভাষায় গালিগালজ করে আবার হিন্দু ধর্ম গ্রহণ করে চলে যায়। জিৎ হোসেন মোবাইলে চাঁদা দাবি করে তার স্ত্রীর কাছে। চাঁদার টাকা না দেয়ায় জিৎ হোসেন গত ৫ অক্টোবর বাদির ছবি ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারে পাঠায়। এরপর ফেসবুক ও ইমোতে ভাইরাল করে দেয় জিৎ হোসেন। বিষয়টি মীমাংসায় ব্যর্থ হয়ে তিনি আদালতে এ মামলা করেছেন।#