বাঘারপাড়ায় ভিক্টোরিয়া পারভীন উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত

ব্যুরো রিপোর্ট : যশোরের বাঘারপাড়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে বিজয়ী হয়েছেন নৌকার প্রার্থী ভিক্টোরিয়া পারভীন সাথী। তিনি ৬৩টি কেন্দ্রে এক লাখ ৭৩ হাজার ৭৭৯ জন ভোটারের মধ্যে এক লাখ এক হাজার ৭৯৩ ভোট পেয়েছেন। মোট ভোট পড়েছে এক লাখ পাঁচ হাজার ৯শ’। অর্থাৎ ভোট পড়েছে প্রায় ৬১ শতাংশ। তার প্রতিদ্ব›িদ্ব দুই প্রার্থীরই জামানত বাজেয়াপ্ত হয়েছে। যদিও ভোটের আগের রাতে স্বতন্ত্র প্রার্থী দিলু পাটোয়ারী ও নির্বাচনের দিন সকাল ৯টার দিকে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী শামছুর রহমান ভোট বর্জনের ঘোষণা দেন।

বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে সহকারী রিটানিং অফিসার মেহেদী হাসান বেসরকারিভাবে ফলাফল ঘোষণা করেন। এর আগে সকাল ৯টা থেকে বিকাল পাঁচটা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে ভোটগ্রহণ করা হয়। উৎসবমুখর ও শন্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোটাররা তাদের ভোটারাধিকার প্রয়োগ করেন।

সহকারী রিটার্নিং অফিসার মেহেদী হাসান জানান, নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী এক লাখ এক হাজার ৭৯৩ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্ব›িদ্ব ধানের শীষের প্রার্থী ভোট পেয়েছেন দুই হাজার ৩৩২টি। নির্বাচনে অপর প্রার্থী আনারস প্রতীকের পিএম রেজাউল ইসলাম দ্বীন মোহাম্মদ ওরফে দিলু পাটোয়ারী পেয়েছেন এক হাজার ৭৭৫ ভোট।
অপরদিকে, সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও সদর উপজেলা নির্বাচন অফিসার আব্দুর রশিদ জানান, যশোর সদর উপজেলায় কলস প্রতীকের প্রার্থী জোৎন্সা আরা মিলি ৫৩ হাজার ৪৫২ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন। তার একমাত্র প্রতিদ্বদ্বী অ্যাডভোকেট সেতারা খাতুন ভোট পেয়েছেন ৩৩ হাজার ৭০১ ভোট। উপজেলার ১৭৫টি কেন্দ্রে পাঁচ লাখ ৬০ হাজার ৫৬০ জন ভোটারের মধ্যে ৮৭ হাজার ৮২২ জন ভোটারাধিকার প্রয়োগ করেন। যার মধ্যে ৬৬৯টি ভোট বাতিল হয়। সেই হিসেবে যশোর সদর উপজেলার ১৫ দশমিক ৬৭ শতাংশ ভোটার তাদের ভোটারাধিকার প্রয়োগ করেন।

এদিকে, ঘন কুয়াশা ও তীব্র শীতের কারণে কিছু কিছু কেন্দ্রে ভোটার উপস্থিতি কম হলেও উপজেলা সদর ও বাজার সংলঘœ কেন্দ্রগুলোতে সকাল থেকেই ভোটার উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মত। বেলা বাড়ার সাথে সাথে বিভিন্ন কেন্দ্রে ভোটারদের উপস্থিতি বাড়তে থাকে।

সকাল ১০টার দিকে বাঘারপাড়া উপজেলার পূর্ব পাইকপাড়া, দোহাকুলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, বাঘারপাড়া সিদ্দিকীয়া ফাযিল মাদরাসাসহ বেশ কয়েকটি কেন্দ্রে ভোটারদের উপস্থিতি ছিল কম। তবে চাড়াভিটা মাধ্যমিক বিদ্যালয়, করিমপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও বাঁকড়ি মাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোটারদের দীর্ঘ লাইন দেখা যায়। দুপুর গড়াতেই বর্ণময় কিন্ডারগার্ডেন, রহরামপুর, খলশি, ক্ষেত্রপালাসহ রায়পুর ও জহুরপুর ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি কেন্দ্রে শত শত নারী-পুরুষ ভোট দিতে আসেন।