যশোরে ২৩ সর্বোচ্চ করদাতাকে সম্মাননা

ব্যুরো রিপোর্ট : ‘মুজিববর্ষের অঙ্গীকার, ইএফডিতে এনবিআর’ এই প্রতিপাদ্যে নিয়ে যশোরে জাতীয় ভ্যাট দিবস ও ভ্যাট সপ্তাহ উদ্বোধন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে কাস্টমস এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেট যশোরের সভাকক্ষে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে ১০ জেলার ২৩ সর্বোচ্চ করদাতাকে সম্মাননা ক্রেস্ট দেওয়া হয়েছে।

অনুষ্ঠানে ২০১৯-২০ অর্থবছরে উৎপাদন, সেবা ও ব্যবসা এ তিনটি ক্যাটাগরিতে সর্বোচ্চ ভ্যাট প্রদানকারী ১০ জেলার ২৩টি প্রতিষ্ঠানকে সম্মাননা ক্রেস্ট দেওয়া হয়। সম্মাননাপ্রাপ্ত প্রতিষ্ঠানগুলো হলো- যশোরের পানশাহী জর্দ্দা ফ্যাক্টরী, থ্রি আর অটো ও আরআরএফ। রাজবাড়ীর মেসার্স বদরুন্নেসা কেমিক্যাল কোম্পানি, আমিন বাজাজ ও হোটেল সালমা এ- রেস্টুরেন্ট। মেহেরপুরের আল কাঈফ মটরস ও বাসুদেব গ্রান্ড সন্স।

মাগুরার মেসার্স ভাই ভাই প্লাস্টিক, ডিউরেবল প্লাস্টিক লিমিটেড ও হোটেল সোনার বাংলা। ফরিদপুরের রাজ্জাক ফুড এন্ড বেভারেজ লিমিটেড, মেসার্স তাজ ইন্টারন্যাশনাল ও মেসার্স হোটেল র‌্যাফেলস ইন, নড়াইলের নিরিবিলি পিকনিক স্পট। ঝিনাইদহের বি এ- টি মটর লিমিটেড ও ফসিয়ার মটরসাইকেল সেন্টার। চুয়াডাঙ্গার মেসার্স বঙ্গ পিভিসি পাইপ ই-াস্ট্রিজ ও মেসার্স তাজ মটরস। গোপালগঞ্জের মেসার্স কাজী সৈয়দ আলী ও শরীফ ফার্ণিচার। কুষ্টিয়ার এমআরএস ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড এবং গ্রীণ এন্টারপ্রাইজ।

যশোর কাস্টমস এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেট কমিশনার মুহাম্মদ জাকির হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বেনাপোল কাস্টম হাউজের কমিশনার আজিজুর রহমান, বিশেষ অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত কমিশনার ফজলুর হক, যুগ্ম কমিশনার নাহিদ নওশাদ মুকুল।

বেনাপোল কাস্টম হাউজের কমিশনার আজিজুর রহমান বলেন, দেশের উন্নয়ন নির্ভর করবে নিজস্ব অর্থায়নের ওপর। রাজস্ব আয় বাড়াতে ভ্যাটের হার বৃদ্ধি নয়, পরিধি বাড়াতে হবে। রাষ্ঠ্র ও নাগরিক ওতোপ্রতোভাবে জড়িত। দেশের উন্নয়নের স্বার্থেই জনগণকে কর দিতে হবে। সরকারের অন্যতম আয়ের উৎস ভ্যাট ও আয়কর। দেশে পদ্মাসেতুসহ বড় বড় বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়িত হচ্ছে জনগণের টাকায়। এসময় তিনি ১০-১৫ ডিসেম্বর সপ্তাহব্যাপী ভ্যাট সপ্তাহের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।